বিকাশে টাকা জমানোর নিয়ম

Originally posted on April 17, 2022 @ 4:24 am

বিকাশে ডিপিএস সেভিংস করার নিয়ম: প্রিয় পাঠক কেমন আছেন নিশ্চয় আশা করি ভাল আছেন আমি তোমাদের দোয়ায় খুবই ভাল আছি আমি তোমাদের মাঝে যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে চাচ্ছি আশাকরি এটি তোমাদের খুবই ভালো লাগবে আজকের আলোচনার মূল বিষয়টি হলো বিকাশে টাকা জমানোর নিয়ম এই আর্টিকেলটি যদি আপনি সম্পূর্ণ ভাবে লক্ষ্য করেন তাহলে জানতে পারবেন যে বিকাশে টাকা জমানোর উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে দেখুন।

বিকাশে টাকা জমানো – বিকাশ সেভিংস মুনাফা

আজকে আমি আলোচনা করব বিকাশে ডিপিএস খোলার নিয়ম এবং বিকাশ এর মাধ্যমে কিভাবে সেভিংস করবেন এবং কিভাবে বিকাশে টাকা জমানো যায় এ বিস্তারিত বিষয় গুলো যদি আপনি জানতে আগ্রহী হয়ে থাকেন আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে দেখুন।

বিকাশে কত টাকা জমানো যায় – বিকাশ সেভিংস বিস্তারিত

আপনি যত টাকা বিকাশে জমা দিয়েছেন একটি একাউন্ট করে খুব সহজেই বিকাশে সেভিংস করার শুরু করতে পারবেন বিকাশ সেভিংস মানে হল আমরা যে ব্যাংকের মধ্যে ডিপিএস করে থাকি ঠিক একইভাবে আপনি বিকাশে টাকা জমানো শুরু করতে পারবেন।

বিকাশে জমানো টাকার উপর ইন্টারেস্ট – বিকাশ সেভিংস মুনাফার হার

আপনি যদি বিকাশে টাকা জমানো শুরু করেন তাহলে 1.5 পারসেন লাভ পেয়ে থাকবেন এবং এটি আপনার প্রতি বছর যোগ করা হবে লাভের অংশটি।

বিকাশ ডিপিএস খোলার নিয়ম – বিকাশে ডিপিএস সেভিংস করার নিয়ম

আপনি যদি বিকাশে সেভিংস একাউন্ট খুলতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে এই বিকাশ একাউন্ট থাকতে হবে।

বিকাশ একাউন্ট তৈরি করার নিয়ম – পার্সোনাল বিকাশ একাউন্ট

আপনার যদি বিকাশ একাউন্ট না থাকে তাহলে এখুনি বিকাশ একাউন্ট তৈরী করে নিন প্রথমত যে কাজগুলো করতে হবে এটি আমি লিস্ট করে দেবো।

সর্বপ্রথম আপনি গুগল প্লে স্টোর অ্যাপস টি ওপেন করুন এরপর Bkash app download লিখে সার্চ করুন এরপর আপনি সবার উপরে বিকাশ এপস টি পাবেন এটি ইনস্টল বাটনে ক্লিক করে ইন্সটল করে নিবেন।

এখন বিকাশ অ্যাপ টি ওপেন করুন বিকাশ রেজিস্ট্রেশন বাটন এ ক্লিক করুন এরপর আপনি বিকাশ একাউন্ট খোলার নাম্বারটি দিন।

এখন আপনার ভোটার আইডি কার্ড এর সামনের কপি এবং পিছনের কফি আপলোড করুন।

আপনার আপলোডকৃত ডকুমেন্ট এর তথ্য যাচাই করুন।

এরপর বিকাশের পিন কোড সেটআপ করে নতুন বিকাশ একাউন্ট তৈরি করে নিবেন।

বাটন মোবাইলে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম

যদি আপনার এন্ড্রয়েড মোবাইল না থাকলে তাহলে বাটন মোবাইলে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম দেখিয়ে দিচ্ছি!

প্রথমে আপনার বাটন মোবাইলটি হাতে নিন এরপর ডায়াল করুন *২৪৭# এখন আপনি কল বাটনে ক্লিক করুন।

এখন আপনার আইডি কার্ডের নাম্বারটি দিন এরপর সেন্ড বাটনে ক্লিক করুন।

এখন আপনার নাম এবং মোবাইল নাম্বার দিন।

এখন বিকাশের পিন কোড যোগ করেন ঘরে বসে বিকাশ অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিন।

বিকাশে ডিপিএস খোলার নিয়ম – বিকাশ সেভিংস একাউন্ট কিভাবে করতে হয়

Bkash savings account opening করার সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া নিচে ভালোভাবে লক্ষ্য করুন!

প্রথমে বিকাশ অ্যাপস ওপেন করুন!

এরপর আপনি দেখতে পাবেন সেভিংস এখানে ক্লিক করুন।

এখানে ক্লিক করার পর আপনি আরও একটি পেইজ দেখতে পাবেন।

উপরে স্ক্রিনশট এর মধ্যে আপনি দেখতে পাচ্ছেন যে তথ্য হালনাগাদ করুন এখানে ক্লিক করে নেক্সট এ চলে আসুন।

স্ক্রিনশট এর মধ্যে আপনি বেশ কিছু অপশন দেখতে পাচ্ছেন বিকাশ একাউন্ট খোলার জন্য বিকাশ সেভিংস একাউন্ট খোলার জন্য যা যা প্রয়োজন এগুলো নিচে লিস্ট করে দিচ্ছি।

  • NID Card এর ছবি তুলুন
  • প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করুন
  • নিজের চেহারার ছবি তুলুন

এরপর আপনি নিজে যে বাটন দেখতে পাচ্ছেন শুরু করুন এখানে ক্লিক করুন এখানে আপনাকে একটি নোটিফিকেশন দেওয়া হবে এখানে বিকাশ সেভিংস সম্পর্কে বিস্তারিত বলা হয়েছে আমার সম্মতি আছে এখানে ক্লিক করে নেক্সট এ চলে আসুন।

বিকাশ সেভিংস রেজিস্ট্রেশন

প্রথমত আপনি ভোটার আইডি কার্ড সুন্দরভাবে ধরে সামনের ছবি তুলুন এর ভোটার আইডি কার্ডের পিছনের ছবি তুলুন।

এখন আপনার ডকুমেন্ট এর তথ্যগুলি যাচাই করুন সঠিক আছে কিনা।

এখন মোবাইলটি আপনার চেহারার মাঝখানে ধরে রাখুন এস্ক্যান হয়ে গেলে বাটনে ক্লিক করুন।

এভাবে করে আপনি বিকাশ সেভিংস একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।

বিকাশ সেভিংস কি? – বিকাশে ডিপিএস করা যায়?

প্রিয় পাঠক আমি যতটুকু সম্ভব চেষ্টা করেছি Bkash dps সম্পর্কে বিস্তারিত আপনাদের মাঝে তুলে ধরার জন্য যদি আপনার কোনোরকম বিকাশ সেভিংস নিয়ে সমস্যা হয় কমেন্ট বক্সে লিখে জানাবেন।

বিকাশে টাকা জমানোর নিয়ম : এছাড়া নিত্যনতুন ডিপিএস সংক্রান্ত তথ্য জানার জন্য এবং টাকা সঞ্চয় করার জন্য এবং টাকা জমানোর জন্য আরও যে কৌশলগুলো রয়েছে এবং নিত্য নতুন টাকা জমানোর কৌশল সম্পর্কে জানতে আমাদের সাথেই থাকুন ধন্যবাদ।