ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২৩

ব্যাংক এশিয়া একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২৩ / Create Bank Asia Account

Latest UpdateDecember 5, 2021 @ 10:26 am

প্রিয় পাঠক কেমন আছেন নিশ্চয় আশা করি ভাল আছেন তোমাদের দোয়া ও ভালবাসায় আমি খুবই ভালো আছি আমি তোমাদের মাঝে যে বিষয়টি নিয়ে শেয়ার করতে যাচ্ছি আশা করি এটি তোমাদের খুবই ভালো লাগবে বলে আমি আশা করি আজকের আলোচনার বিষয়টি হলো ব্যাংক এশিয়া একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য গুলো আপনি যদি জানতে চান অবশ্যই সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি দেখুন।

অনলাইনে ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম ( Bank Asia )

আপনি যদি অনলাইনে মাধ্যমে ব্যাংক এশিয়া একাউন্ট তৈরী করতে চান সে ক্ষেত্রে কিভাবে করবেন প্রথমে আমি এই নিয়মটি শেয়ার করতে যাচ্ছি।

ব্যাংক এশিয়ার যে অ্যাপসটি রয়েছে এটি আপনাকে ডাউনলোড করতে হবে এরপর আপনাকে এখানে প্রয়োজনীয় ইনফরমেশন গুলো দিতে হবে এভাবে করে আপনি ব্যাংক এশিয়া অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিতে পারবেন।

How to create Bank Asia account ( ব্যাংক এশিয়া একাউন্ট তৈরি )

আপনি যদি ব্যাংক এশিয়ার শাখা গুলো তে গিয়ে একাউন্ট তৈরী করতে চান সেক্ষেত্রে আপনার যে প্রয়োজনীয় বিষয়গুলো লাগবে সেটাই আমি এত নিচে লিস্ট করে দিচ্ছি।

ব্যাংক এশিয়া অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে কি কি লাগে

১. আপনার ভোটার আইডি কার্ড কিংবা জন্ম নিবন্ধন এর ফটোকপি।

২. কমিশনার সার্টিফিকেট কিংবা ইউনিয়ন পরিষদের সার্টিফিকেট।

৩. ব্যাংক এশিয়া রেফারেন্স অ্যাকাউন্ট নাম্বার।

৪. নমিনির ১ কপি ছবি এবং ভোটার আইডি কিংবা জন্ম নিবন্ধন ফটোগ্রফি।

৫. বিদ্যুৎ বিল কিংবা গ্যাসের বিল ফটোকপি লাগবে।

ব্যাংক এশিয়ার এটিএম কার্ড পেতে কত সময় লাগে

আপনি যদি ব্যাংক এশিয়ার চেক বই কিংবা এটিএম কার্ড পেতে চান সেক্ষেত্রে আপনার কতদিন সময় লাগবে এই বিষয়টি আপনারা অনেকেই জানতে চান বিশেষ করে তাদের উদ্দেশ্যে বলা আপনি 15 দিন কিংবা আগের যোনির ভিতরে ব্যাংক এশিয়া চেক বই কিংবা ব্যাংকের এটিএম কার্ড পেয়ে যাবেন।

ব্যাংক এশিয়া একাউন্ট চেক করার নিয়ম / Bank Asia Account Balance Check

মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে ব্যাংক এশিয়ার একাউন্টে যত ব্যালেন্স রয়েছে সবগুলোই কিভাবে চেক করবেন এই নিয়মটি দেখিয়ে দিচ্ছে তার জন্য আপনাকে ডায়াল করতে হবে এসএমএস অপশনে গিয়ে send ACC {<পিন> কোভ} {Source অ্যাকাউন্ট নাম্বার} [ e mail] [ starting tran.date] [ ending trans.date] to 6969

ব্যাংক এশিয়া এজেন্ট ব্যাংকিং কমিশন

প্রিয় পাঠক এখন আমি তোমাদের মাঝে শেয়ার করতে যাচ্ছি ব্যাংক এশিয়া এজেন্ট নিয়ে কিভাবে আপনি ব্যবসা করবেন বিস্তারিত যদি আপনি জানতে চান তাহলে দেখুন।

ব্যাংক এশিয়া এজেন্ট নির্ধারণ :

১. ব্যবসা পরিচালনা করতে শিক্ষিত ব্যক্তি হতে হবে।

২. যে কোন বৈধ ব্যবসার মালিকানা থাকতে হবে।

৩. সমাজিক উদ্যোগতা থাকতে হবে।

৪. একমালিকানা কিংবা অংশীদারি হতে হবে।

ব্যাংক এশিয়া এজেন্ট ব্যাংকিং যোগ্যতা :

১. সর্বনিম্ন এসএসসি পাস হতে হবে।

২. ব্যবসা ব্যবস্থাপনা সক্ষমতা থাকতে হবে।

৩. নগদ লেনদেনের ক্ষেত্রে সক্ষম ব্যক্তি হতে হবে।

৪. সামাজিকভাবে অবশ্যই যোগ্যতা থাকতে হবে।

৫. রাষ্ট্রবিরোধী কোনো অভিযোগ থাকা যাবেনা।

৬. ব্যাংকের সুনাম ধরে রাখতে হবে।

৭. সেবাপ্রদানকারীর অবশ্যই মনোযোগ কত হবে।

৮. এজেন্ট ব্যাংকিং পরিচালনা করার জন্য ভালো অভিজ্ঞতা থাকতে হবে কিংবা মন মানসিকতা।

ব্যাংক এশিয়া এজেন্ট ব্যাংকিং দায়িত্ব :

১. গ্রাহককে যথাযথ সেবা প্রদান করিতে হবে।

২. কম্পিউটার কিংবা ওয়েব ক্যাম, প্রিন্টার কিংবা বায়োমেট্রিক ডিভাইস, অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিস নিশ্চিত করতে হবে।

৩. প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে।

৪. ব্যাংকের সিডিউল চার্ট প্রদর্শিত রাখবে।

৫. দৈনিক ব্যাংকের রিপোর্ট প্রদান করিতে হবে।

৬. ব্যাংক এশিয়ার পলিসি মেনে কাজ করতে হবে।

ব্যাংক এশিয়া এজেন্ট এর জন্য নিষিদ্ধ কাজ সমূহ

১. ব্যাংক এর নির্ধারিত চার্জ ছাড়াই কোনরকম অতিরিক্ত কাস্টমারদের থেকে চার্জ প্রদান করতে পারবে না।

২. ব্যাংক এশিয়ার সেবা ছাড়া অন্য কোনো সেবা প্রদান করিতে পারিবে না।

৩. চেকের মাধ্যমে লেনদেন করিতে পারিবেনা বায়োমেট্রিক এর মাধ্যমে করতে হবে।

৪. গ্রাহকের কোনরকম গোপন জিনিস জিজ্ঞাসা করা যাবে না।

৫. ব্যাংক এশিয়া এজেন্ট ব্যাংকিং ছাড়া অন্য ব্যাংকের ব্যবসায় যুক্ত হতে পারবে না।

৬. কোনভাবে বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেন করতে পারবে না।

ব্যাংক এশিয়া ডিপিএস রেট

প্রিয় পাঠক এখন আমরা জানতে চাচ্ছি ব্যাংক এশিয়া ডিপিএস সংক্রান্ত তথ্য গুলো নিয়ে বিশেষ করে আপনি যদি ব্যাংকের সাথে ডিপিএস করতে চান সেক্ষেত্রে আপনি কি ধরনের সুবিধা পাবেন বিস্তারিত তথ্য গুলো নিচে দেওয়া হয়েছে দেখুন।

ব্যাংক এশিয়া ডিপিএস এর সুবিধা

১. ব্যাংক এশিয়া তে টাকা জমানোর ক্ষেত্রে অ্যাক্টিভ রেট উপভোগ করতে পারবেন।

২. টাকা জমানোর ক্ষেত্রে কোনো রকম গোপন চার্জ প্রযোজ্য হবে না।

৩. SOD লোন ফ্যাসিলিটি ও ভোগ করতে পারবেন।

৪. টাকা জমানোর ক্ষেত্রে কোনো রকম অনলাইন সার্চ প্রযোজ্য হবে না।

৫. এছাড়া কাস্টমার চার্জ এক্কেবারে বিনামূল্য।

ব্যাংক এশিয়া ডিপিএস করার জন্য কি কি লাগবে

এখন আপনি জানতে পারবেন ব্যাংকের সাথে ডিপিএস করার জন্য আপনার কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন হতে পারে এই বিষয়গুলো নিচে বের করে দেওয়া হয়েছে দেখুন।

১. ব্যাংক এশিয়ায় একাউন্ট অপেনিং ফর্ম প্রয়োজন হবে।

২. ভোটার আইডি কার্ড কিংবা জন্ম নিবন্ধন ফটোকপি।

৩. অ্যাড্রেস এর সঠিক তথ্য যাচাই করতে হবে।

৪. যদি প্রয়োজন হয় সে ক্ষেত্রে টিন সার্টিফিকেট প্রয়োজন হবে।

৫. এসব গুরুতত্ত্ব যদি আপনার থাকে তাহলে খুব সহজে ব্যাংক এশিয়া ডিপিএস অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

ব্যাংক এশিয়া ডিপিএস লাভ

আপনি যদি Bank Asia DPS করেন সেক্ষেত্রে আপনি আপনার টাকার বিনিময় যে লাভের অংশ পাবেন সেটি নিচে লিস্ট করে দেওয়া হয়েছে দেখুন।

ব্যাংক এশিয়া বাংলাদেশ লিমিটেড ( Bank Asia ltd )

ব্যাংক এশিয়া একাউন্ট খোলার নিয়ম প্রিয় পাঠক আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমি ব্যাংক এশিয়া সংক্রান্ত যত রকম তথ্য রয়েছে শেয়ার করার জন্য চেষ্টা করেছি।

এছাড়া আপনি যদি ব্যাংক একাউন্ট সম্পর্কে আরও তথ্য জানতে আগ্রহী হয়ে থাকেন অবশ্যই কমেন্ট বক্সে লিখে জানাবেন।

আমরা নিয়মিত বাংলাদেশ ব্যাংক গুলো রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে আলোচনা এবং আপনাদের বোঝার সুবিধার্থে বিষয়গুলো শেয়ার করে থাকে অবশ্যই আমাদের সাথে কানেক্টেড থাকুন ধন্যবাদ।

Show More

Related Articles

Back to top button